fbpx

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞাপন, কী কী শিক্ষাগত যোগ্যতা থাকলে আবেদন করা যাবে ?

 পুজোর আগেই বিজ্ঞপ্তি জারি হয়েছে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের। ১১ হাজারেরও বেশি শূন্যপদে প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগ হবে, ইতিমধ্যেই তা ঘোষণা করেছেন পর্ষদ সভাপতি। চতুর্থীর দিন নিয়োগের বিজ্ঞাপনও দিয়েছে পর্ষদ। সেক্ষেত্রে নিয়োগের জন্য পর্ষদ ২০১৮-এর কোনও নিয়ম পরিবর্তন করেনি। সেক্ষেত্রে ২০১৪, ২০১৭-এর টেট উত্তীর্ণরা আবেদন করতে পারবেন এই নিয়োগের জন্য।

প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞাপন- শিক্ষাগত যোগ্যতা 

তবে চাকরি প্রাথীদের প্রশ্ন ছিল কী যোগ্যতা বা কেমন নম্বর থাকলে আবেদন করা যাবে? বিজ্ঞাপনে পর্ষদ জানিয়েছে, যারা টেট পাশ করা তাদের ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে নিয়োগ হবে। D.El.Ed/D.Ed/B.Ed যারা পাশ করেছে বা যাদের ২০২০-২০২২ ব্যাচ এবং পার্ট ওয়ানে উত্তীর্ণ তারাও বসতে পারবে। সেক্ষেত্রে টেট উত্তীর্ণ থাকতে হবে। তারপর ইন্টারভিউয়ের মাধ্যমে শিক্ষক-শিক্ষিকা নিযুক্ত হবে।

পাশাপাশি যারা D.El.Ed/D.Ed/B.El.Ed Qualified তাদের উচ্চ মাধ্যমিকে ৫০% শতাংশ লাগবে। Reserved Category যারা (SC/ST/OBC/PH) তাদের ৪৫% মার্কস লাগবে। যারা B.Ed করেছে বা করছে তাদের গ্র্যাজুয়েশনে ৫০% নম্বর লাগবে। সংরক্ষিতদের ৪৫% নম্বর লাগবে। আগামী ২১ অক্টোবর থেকে অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন। তার জন্য ইতিমধ্যেই পর্ষদের তরফে একটি পোর্টালও চালু করা হয়েছে। যে পোর্টালের মাধ্যমে আবেদন করা যাবে। তবে লক্ষ্মী পুজোর পর ফের গোটা বিষয় নিয়ে পর্যালোচনা বৈঠকে বসবে প্রাথমিক শিক্ষা পর্ষদ বলে জানা গিয়েছে।

ইতিমধ্যেই মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় শিক্ষক নিয়োগের ব্যাপারে একাধিকবার ঘোষণা করেছেন।- পাশাপাশি শিক্ষক দিবসের অনুষ্ঠান মঞ্চ থেকেও জানিয়েছিলেন, রাজ্য ৮৯ হাজার শিক্ষক নিয়োগের জন্য প্রস্তুত।প্রাথমিক শিক্ষক নিয়োগের বিজ্ঞাপন জারি হলেও নিয়োগের কাজ যে দ্রুত শুরু করা হবে সেই বিষয়ে ইতিমধ্যেই আভাস দিয়েছে পর্ষদ। তবে পর্ষদ আপাতত নিয়োগের জন্য কত আবেদন জমা পড়ছে সেদিকেই তাকিয়ে।পর্ষদ সূত্রে খবর, ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই ইন্টারভিউ প্রক্রিয়া শুরু করতে চায় পর্ষদ। যদিও গোটা ব্যাপারটা নির্ভর করছে আবেদনপত্র জমা ও স্ক্রুটিনির উপর বলেই দাবি পর্ষদের আধিকারিকদের।

Source link

Leave a Reply